ব্রাহ্মণবাড়িয়াবাসীকে ঈদের শুভেচ্ছা জানালেন যমুনা হাসপাতালের এমডি ও চেয়ারম্যান

লেখক:
প্রকাশ: ১ বছর আগে

ব্রাহ্মণবাড়িয়া সহ দেশবাসীকে ঈদের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন ব্রাহ্মণবাড়িয়ার স্বনামধ্য ও প্রথম ডিজিটাল হাসপাতাল ,যমুনা হাসপাতালের চেয়ারম্যান মো: ইমরান খান ও ব্যবস্থপনা পরিচালক জুলফিকার আলী।

গণমাধ্যম দেওয়া এক শুভেচ্ছা বার্তায় তারা জানান, আমাদের  রমজানের শেষ এবং ঈদুল ফিতরের আনন্দের মধ্যে দিয়ে  নতুন মাসের শুরু আল্লাহ আমাদের শক্তি, বিশ্বাস এবং প্রজ্ঞা দিয়ে আমাদের জীবন কে সুন্দর করে তুলুক।।

যমুনা হাসপাতালের চেয়ারম্যান ইমরান খান জানান, ইসলাম শান্তি ও কল্যাণের ধর্ম। এখানে হিংসা-বিদ্বেষ, হানাহানির কোনও স্থান নেই। মানবিক মূল্যবোধ, পারস্পরিক সহাবস্থান, পরমতসহিষ্ণুতা ও সাম্যসহ বিশ্বজনীন কল্যাণকে ইসলাম ধারণ করে।তিনি বলেন, ইসলামের এই সুমহান বার্তা ও আদর্শ সবার মাঝে ছড়িয়ে দিতে হবে। ইসলামের মর্মার্থ ও অন্তর্নিহিত তাৎপর্য মানবতার মুক্তির দিশারি হিসেবে দিকে দিকে ছড়িয়ে পড়ুক, বিশ্ব ভরে উঠুক শান্তি আর সৌহার্দ্য। ঈদের খুশিতে ভরে উঠুক সবার জীবন, পবিত্র ঈদুল ফিতরে এই প্রত্যাশা করি।

যমুনা হাসপাতালের ব্যবস্থাপনা পরিচালক জুলফিকার আলী বলেন, ঈদ সবার মধ্যে গড়ে তোলে সৌহার্দ্য সম্প্রীতি ও ঐক্যের বন্ধন। ঈদুল ফিতরের অভিরাম ভালোবাসা সবার মাঝে ছড়িয়ে পড়ুক, গড়ে উঠুক সমৃদ্ধ ও সুখী বাংলাদেশ এ প্রত্যাশা করি।‘বাংলাদেশ সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির দেশ। আবহমানকাল থেকে এখানে সব ধর্মের মানুষ মিলেমিশে বসবাস করছে। এই সম্প্রীতি আমাদের জাতীয় ঐতিহ্য।

তারা দেশের সকল মানুষকে মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় উদ্বুদ্ধ হয়ে সকালকে দেশের উন্নয়ন ও অগ্রগতি অব্যাহত রাখতে সবাইকে দেশের উন্নয়নে জন্য কাজ করার আহ্বান জানান।মাননীয়া প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে যে উন্নয়নের ধারা অব্যাহত আছে, তা অব্যাহত রাখতে জননেত্রী শেখ হাসিনার জন্য দীর্ঘায়ু কামনায় সবার কাছে দোয়া প্রার্থনা করেন তিনি।

(প্রেস বিজ্ঞপ্তি)