সফলতার পরেও কেন ব্যর্থ কোহলি

লেখক:
প্রকাশ: ১০ মাস আগে

ক্রিকেট তারকা হিসেবে বিরাট কোহলির জনপ্রিয়তা কেবল ভারত নয়, ক্রিকেট বিশ্বে সমাদৃত। তা সত্ত্বেও সমালোচনা পিছু ছাড়েনি কোহলির। বেশির ভাগ সমালোচনা সহ্য করতে হয়েছে অধিনায়ক থাকাকালীন। তবে নিজেকে ভিন্নভাবে বিচার করেন কোহলি।

চলছে আইপিএলের ১৬তম আসর। যেখানে কোহলির দল রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গলুরুর অবস্থা খানিকটা নড়বড়ে। যদিও দলটির দায়িত্ব কোহলি নয়, ফাফ ডু প্লেসির কাঁধে। তবুও বড় তারকার কাছে সবসময় চাহিদা থাকে একটু বেশিই। ১১ ম্যাচ শেষে বেঙ্গালুরু রয়েছে পয়েন্ট টেবিলের সাতে। 

এদিকে আইপিএলে জ্বলে উঠতে না পারা এবং ক্রিকেট ক্যারিয়ারের সার্বিক বিষয় নিয়ে মুখ খুলেছেন ভারতীয় এই ব্যাটসম্যান। সম্প্রতি একটি অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে কোহলি বলেন, ‘আমার ভুলগুলো স্বীকার করতে কোনো সমস্যা নেই। ব্যর্থতা তো সফলতার চেয়েও বেশি আলোচিত হয়। আমি সবসময় দলকে সবার আগে গুরুত্ব দেয়ার চেষ্টা করেছি। নিজের জন্য বা নিজের স্বার্থের কথা চিন্তা করিনি।’

কোহলি আরও বলেন, ‘আমি নিজেকে ট্রফি দিয়ে বিচার করি না। আপনি যদি আমার দায়িত্বের সময়ে দলীয় সফলতা দেখেন, তাহলে সেটিকে খারাপ বলতে পারবেন না। হ্যাঁ, কয়েকটি ট্রফি আমাদের হাতছাড়া হয়েছে। কিন্তু দল এগিয়ে গেছে। আমি সেটিই করার চেষ্টা করেছি। এরপরও লোকে ব্যর্থ বলে।’

২০২১ সালে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের পরে ভারতের অধিনায়কত্ব ছেড়ে দেন কোহলি। এরপর ওয়ানডে দলের নেতৃত্ব থেকে কোহলিকে সরিয়ে দেয় ক্রিকেট বোর্ড। এতে বিসিসিআইয়ের সঙ্গে কোহলির দ্বন্দ্ব বাধে। এই দ্বন্দ্বের প্রভাবে টেস্টের অধিনায়কত্বও ছেড়ে দেন কোহলি।

ভারতের অধিনায়ক থাকাকালীন ৬৮ টেস্টের মধ্যে ৪০টি জিতেছে কোহলির দল। যা যে কোনো ভারতীয় অধিনায়কের মধ্যে সর্বোচ্চ। ওয়ানডেতে ৯৫ ম্যাচে নেতৃত্ব দিয়ে ৬৫টিতে জিতিয়েছেন দলকে। আর ৫০ টি-টোয়েন্টির মধ্যে অধিনায়ক হিসেবে ৩০ ম্যাচে জয় পেয়েছেন কোহলি।