W3Schools.com  

জাতীয় দৈনিক ঐশী বাংলা’র সাহিত্য সম্পাদক- তিতাস পাড়ের কবি ড. এস এম শাহনূর

লেখক:
প্রকাশ: ৭ মাস আগে

বিশেষ প্রতিনিধি: দৈনিক ঐশী বাংলা পত্রিকার সাহিত্য সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব নিলেন খ্যাতিমান কবি, আন্তর্জাতিক সাহিত্যাঙ্গনের সুপরিচিত মুখ, বহুমাত্রিক লেখক ও গবেষক ড. এস এম শাহনূর। গতকাল (শুক্রবার) ঢাকাস্থ ২২২ পশ্চিম শান্তিবাগ,শাহজাহানপুর, দৈনিক ঐশী বাংলা’র স্থায়ী কার্যালয়ে তিনি এ দায়িত্বভার গ্রহণ করেন। এ সময় পত্রিকাটির প্রকাশক ও সম্পাদক সূফী মুহিউদ্দীন খান ফারুকী- ড. এস এম শাহনূর-কে ঐশী বাংলা’র সাহিত্য সম্পাদকের পরিচয় পত্র পরিয়ে দেন এবং প্রয়োজনীয় ডকুমেন্ট হস্তান্তর করেন। ড. এস এম শাহনূরের এ দায়িত্বভার গ্রহণকালে আরো উপস্থিত ছিলেন দৈনিক ঐশী বাংলা’র এসিস্ট্যান্ট এডিটর শাহ ডক্টর মোহাম্মদ আলাউদ্দিন, মফস্বল সম্পাদক মোঃ শরীফুল ইসলাম প্রমুখ। ড. এস এম শাহনূর ৮ সেপ্টেম্বর ১৯৭৯ ইংরেজি, ব্রাহ্মণবাড়িয়া (কসবা) জেলার বল্লভপুর গ্রামের এক মুসলিম পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। পিতার নাম হাজী আব্দুল জব্বার বল্লভপুরী (রহ.), মাতার নাম জাহানারা বেগম। ছোটবেলা থেকেই কবিতা ও গল্প লেখায় হাতে খড়ি। ছাত্র জীবনে তিনি ছিলেন প্রতি পরীক্ষায় ফার্স্ট হওয়া অত্যন্ত মেধাবী ছাত্র। কর্মজীবনে জাতিসংঘের UNIFIL এ দীর্ঘ সময় কর্মরত ছিলেন। চষে বেড়িয়েছেন ইউরোপ-এশিয়ার নানান দেশ। গবেষণাধর্মী, ভ্রমণ, জীবনী, ইতিহাস-ঐতিহ্য ও কবিতাসহ একাধিক গ্রন্থ প্রকাশিত হয়েছে। বিশ্বের একনম্বর প্রকাশনা সংস্থা আমাজন থেকে প্রকাশিত একাধিক গ্রন্থে তাঁর লেখা প্রকাশিত হয়েছে। গিনেস বুক অব ওয়ার্ল্ড রেকর্ডস এর অন্তর্ভুক্ত আন্তর্জাতিক অ্যান্থলজি BOOK OF HYPERPOEM এর তিনি একজন বাংলাদেশী কবি। বিশ্বের ৩০টি ভাষায় অনূদিত হয়েছে তাঁর লেখা এবং দেশ বিদেশের নানান পত্রিকা ও সাময়িকীতে নিয়মিতভাবে প্রকাশিত হচ্ছে। কর্মের স্বীকৃতিস্বরূপ দেশ বিদেশ থেকে প্রাপ্ত বহু পুরস্কার ও সম্মাননা তাঁর ঝুলিতে জমা আছে। শিশু অধিকার বিষয়ক কবিতা ও নিজস্ব সংস্কৃতিকে মৌলিক লেখার মাধ্যমে আন্তর্জাতিক অঙ্গনে ছড়িয়ে দেওয়ায় আমেরিকান ইউনিভার্সিটি অব মিলফোর্ড তাঁকে (আন্তর্জাতিক সাহিত্যে) সম্মানসূচক ডক্টরেট (ডি লিট) ডিগ্রি প্রদান করেন। আগামী ১ ডিসেম্বর “জাগ্রত ব্যবসায়ী ও বাংলাদেশ” এর উদ্যোগে গাজীপুরের নির্ভানা রিসোর্টে অনুষ্ঠিত এক মহামিলন মেলায় উপমহাদেশের ৫০ জন খ্যাতিমান গবেষকের সাথে ড. এস এম শাহনূরকেও “ডক্টরেট 50 নক্ষত্র সম্মাননা” প্রদান করা হবে বলে একটি বিশেষ সূত্র নিশ্চিত করেছে।