ম্যাজিস্ট্রেট পরিচয়ে চাঁদাবাজি

লেখক: Md Emon
প্রকাশ: ৬ মাস আগে

অনলাইন ডেক্স

সিরাজগঞ্জে জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের ম্যাজিস্ট্রেট পরিচয়ে চাঁদাবাজির সময় দুই ভুয়া ম্যাজিস্ট্রেটকে আটক করে পুলিশে দিয়েছে স্থানীয়রা। পরে এক ব্যবসায়ীর করা মামলায় তাদের গ্রেপ্তার দেখিয়ে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

শনিবার (২৬ আগস্ট) বিকেলে শহরের মিরপুর বাস টার্মিনাল থেকে তাদের আটক করা হয়। পরে রাতে তাদের বিরুদ্ধে প্রতারণা ও চাঁদা বাজির অভিযোগে সদর থানায় মামলা দায়ের হয়।  রোববার (২৭ আগস্ট) সকালে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে প্রেরণ করা হয়।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন, সিরাজগঞ্জ পৌরসভার রেলওয় কলোনী মহল্লার পূর্ণ চন্দ্র দাসের ছেলে কৃষ্ণ কুমার দাস (৩০) ও সদর উপজেলার শিয়ালকোল ইউনিয়নের আমতলা বাজারের রহমত আলীর ছেলে শাহিন রেজা (২৬)।

বিষয়টি নিশ্চিত করে সদর থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সিরাজুল ইসলাম বলেন, মিরপুর বাস টার্মিনাল এলাকায় ভোক্তা অধিদপ্তরের ম্যাজিস্ট্রেট পরিচয় দিয়ে চাঁদাবাজি করার সময় স্থানীয়রা দু’জনকে হাতেনাতে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করে। পরে এ ঘটনায় শনিবার রাতে মিরপুর পশ্চিমপাড়ার এক চা দোকানি বাদী হয়ে প্রতারণা ও চাঁদাবাজির অভিযোগে তাদের বিরুদ্ধে মামলা করেন।

তিনি আরও বলেন, এই মামলায় তাদের দু’জনকে গ্রেপ্তারর দেখিয়ে রোববার সকালে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে প্রেরণ করা হয়েছে।

এ ব্যাপারে সিরাজগঞ্জ ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক হাসান আল মারুফ ঢাকা পোস্টকে বলেন, এমন ঘটনা প্রায়ই হচ্ছে। একারণে সবাইকে সচেতন থাকতে হবে। মানুষকে সচেতন করতে ভোক্তা অধিকারের পক্ষ থেকে বিজ্ঞাপন দেওয়া হচ্ছে। ভোক্তা অধিকারের পরিচয় দিয়ে যদি কেউ চাঁদাবাজির চেষ্টা করে তাহলে তাকে পুলিশে দেওয়ার আহ্ববান জানাই। প্রয়োজনে তারা আমাদেরও জানাতে পারে। ভোক্তা অধিকারের পরিচয় দিয়ে অন্যকেও বা ভোক্তা অধিকারের কোনো কর্মকর্তারও ঘুষ নেওয়া বা চাঁদাবাজির সুযোগ নেই।

সূত্র: ঢাকা পোষ্ট

পথিক নিউজ/ মো:ইমন