সরাইল উপজেলা নির্বাচনে জন সমর্থনে এগিয়ে আছে শের আলম

লেখক:
প্রকাশ: ৩ সপ্তাহ আগে

লিটন হোসাইন জিহাদ: আগামী ৮মে অনুষ্ঠিত হবে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইল উপজেলা পরিষদ নির্বাচন। নির্বাচনকে কেন্দ্র করে  প্রার্থী ও সমর্থকদের মধ্যে চলছে ব্যাপক গণসংযোগ, কর্মিসভা, মতবিনিময় ও উঠান বৈঠক। শোভা পাচ্ছে উপজেলার প্রতিটি ইউনিয়নের গুরুত্বপূর্ণ স্থান ও সড়কে প্রার্থীদের পোস্টার।

উপজেলা নির্বাচনে ৫ জন প্রার্থী মধ্যে জনসমর্থনে এগিয়ে রয়েছে সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান ও আওয়ামী যুবলীগের সাবেক সম্পাদক মো: শের আলম।

এছাড়াও চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন, সরাইল উপজেলা আওয়ামী লীগের একাধিকবারের সাবেক সম্পাদক ও উপজেলা পরিষদের দুইবারের সাবেক চেয়ারম্যান রফিক উদ্দিন ঠাকুর (ঘোড়া)।

উপজেলা আওয়ামী যুবলীগের (প্রস্তাবিত কমিটি) সাবেক যুগ্ম সম্পাদক ও উপজেলা পরিষদের সদ্য সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান আবু হানিফ (কাপ-পিরিচ), সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান ও আওয়ামী যুবলীগের সাবেক সম্পাদক মো. শের আলম (মোটরসাইকেল), উপজেলা আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক কমিটির সাবেক সদস্য মো. মুখলেছুর রহমান (আনারস) ও স্বতন্ত্র প্রার্থী সামাজিক ব্যক্তিত্ব ব্যবসায়ী মো. জামাল মিয়া (দোয়াত-কলম)।

তবে এবারের হিসাব একটু ভিন্ন। উপজেলা পরিষদের দুইবারের সাবেক চেয়ারম্যান রফিক উদ্দিন ঠাকুর ছাড়াও  আলোচনায় রয়েছেন শের আলম।  কিন্তু কে হচ্ছেন উপজেলা চেয়ারম্যান এই নিয়ে সাধারণ ভোটারদের মধ্যেও জল্পনা-কল্পনার শেষ নেই।

শেষ মুহূর্তে উপজেলা পরিষদের দুইবারের সাবেক চেয়ারম্যান রফিক উদ্দিন ঠাকুর (ঘোড়া) ও সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান মো. শের আলম (মোটরসাইকেল) প্রতীকের মধ্যে মূল প্রতিদ্বন্দ্বিতা হবে এমনটা দাবি করছেন সচেতন

এক সময়ের সরাইল কলেজ ও উপজেলা শাখা ছাত্রলীগ নেতা পরবর্তীতে উপজেলা আওয়ামী যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক মো. শের আলম মিয়া। ভাইস চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়ে দীর্ঘ ৫ বছর দায়িত্ব পালন করেছেন। ছিলেন উপজেলা আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক কমিটির সাবেক সদস্যও।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক নেতা জানান, শেরআলম হলো বন্ধুত্বসুলব মানুষ । সে মানুষের বিপদে আপদে সবার আগে এগিয়ে আসে। তাই এবার নির্বাচনে সরাইল বাসি শের আলমের মোটর সাইকেল মার্কা ভোট দিতে কার্পন্য করবে না।মোটর সাইকেল মার্কার জোয়ার উঠেছে সরাইলে।

উপজেলা নির্বাচন অফিস সূত্রে জানা যায়, সরাইল উপজেলা ৯ ইউনিয়ন নিয়ে গঠিত। সরাইলে ভোটার সংখ্যা ২ লাখ ৭০ হাজার ৬৬৪, পুরুষ ভোটার সংখ্যা ১ লাখ ৪৪ হাজার ৯৭৭ জন, মহিলা ভোটার সংখ্যা ১ লাখ ২৫ হাজার ৬৮৬ জন। এছাড়াও তৃতীয় লিঙ্গের ভোটার ১ জন। উপজেলার ৯ ইউনিয়নে ভোট কেন্দ্র ৮৪ টি।