W3Schools.com  

নদী রক্ষায় বাংলাদেশ নদী পরিব্রাজক দল ব্রাহ্মণবাড়িয়া শাখার নাগরিক সংলাপ অনুষ্ঠিত

লেখক: Md Emon
প্রকাশ: ১০ মাস আগে

বাংলাদেশ নদী পরিব্রাজক দল (বিআরটিএন) ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা শাখার উদ্যোগে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নদী সংরক্ষণে নাগরিক সংলাপ অনুষ্ঠিত হয়েছে। সংলাপে অতিথিরা জেলার তিতাস নদী ও টাউন খালকে বাঁচাতে সম্মিলিত উদ্দ্যোগ প্রয়োজন বলে মন্তব্য করেন। উক্ত সংলাপে জেলার বিভিন্ন পেশাজীবীরাও অংশ নেন। ২ ই সেপ্টেম্বর রোজ শনিবার বিকেলে শহরের মসজিদ রোডস্থ এ মালেক কনভেনশন হল এন্ড কমিউনিটি সেন্টারে নদী পরিব্রাজক দল ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা শাখার সভাপতি ফেবিন রহমানের সভাপতিত্বে এ সংলাপ অনুষ্ঠিত হয়

 অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক ডেপুটি কমান্ডার গেরিলা বীর মুক্তিযোদ্ধা গাজী মো. রতন মিয়া। তিনি তার বক্তব্যে বলেন, স্বাধীনতার পর দীর্ঘ চার দশকে দখল-দূষণ আর ডুবোচরে প্রায় মরা এখন ব্রাহ্মণবাড়িয়ার ঐতিহ্যবাহী তিতাস নদী। এক সময়ের খরস্রোতা তিতাসের বিশাল ঢেউয়ের গর্জন আর নেই। ভূমিখেকো, প্রভাবশালী দখলদার আর পৌরসভার আবর্জনার স্তূপে নদীটি অনেকটাই সংকুচিত হয়ে গেছে। নদীর অনেক অংশে তীর দখল করে গড়ে তোলা হয়েছে বহুতল ভবনসহ স্থাপনা। নদীটির প্রাণ ফিরিয়ে আনার জন্য খননের পাশাপাশি দ্রুত সময়ের মধ্যে উচ্ছেদ অভিযান খুবই প্রয়োজন। অপর দিকে অযত্ন আর অবহেলায় প্রায় বিলীন হওয়ার পথে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার ঐতিহ্যবাহী টাউন খাল। তিতাস নদী থেকে উৎপত্তি হওয়া ৪ দশমিক ৮ কিলোমিটারের টাউন খালকে ঘিরেই গড়ে উঠেছিল এই শহরের প্রাচীন বাণিজ্যিক কেন্দ্র। অথচ সেই খালই এখন অস্তিত্ব হারিয়ে বর্জ্যের ভাগাড়ে পরিণত হয়েছে।

তিনি সকলের দৃষ্টি আকর্ষণ করে বলেন, টাউন খালটির বিভিন্ন অংশে কচুরিপানা জমে এখন পানির দেখা মিলে না। বছরের পর বছর পার হলেও খালটি রক্ষায় পুনঃখনন বা সুপরিকল্পিত উদ্যোগ না নেওয়ায় খালের বেশিরভাগ অংশ ভরাট হয়ে গেছে। আর যা-ও অবশিষ্ট রয়েছে তাতেও বর্জ্য ফেলে ভরাট করার পথে। তাই তিতাস নদী ও টাউন খালকে বাঁচাতে সম্মিলিত উদ্দ্যোগ প্রয়োজন।

সংলাপে প্রধান আলোচক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ নদী পরিব্রাজক দলের কেন্দ্রীয় সভাপতি প্রকৌশলী হাবিবুর রহমান। হাবিবুর রহমান তার বক্তব্যে বলেন, আমরা চেষ্টা করবো আগামী দুবছরের মধ্যে ব্রাহ্মণবাড়িয়া শহরের টাউন খালকে দর্শনার্থীদের জন্য দৃষ্টিনন্দন করতে পারে সে উদ্যোগ নেয়ার। তিনি সকলের প্রতি আহ্বান করেন,নদীতে ভ্রমণ করার এবং নদীর প্রাণ ও প্রকৃতির দর্শন করার।

এছাড়াও সংলাপে বিশেষ আলোচক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ নদী পরিব্রাজক দল কেন্দ্রীয় কমিটির সেক্রেটারি জেনারেল ইসলাম মাহমুদ, বিশিষ্ট সাংবাদিক আল আমিন শাহিন, সমাজ সেবক ও বিশিষ্ট ব্যবসায়ী আব্দুল মালেক, ব্রাহ্মণবাড়িয়া পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. মনজুর রহমান, সরকারি কর্মচারী সমন্বয় পরিষদের সাংগঠনিক সম্পাদক কাজী হাফিজুল ইসলাম নাছু , মো. সুলতান মিয়া, বীর মুক্তিযোদ্ধা কাউছার আহাম্মদ চৌধুরী প্রমুখ।

নদী পরিব্রাজক দল, সরাইল উপজেলা শাখার সভাপতি এড. মো. মোবারক হোসেনের সঞ্চালনায় সংলাপে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক আজহারুল ইসলাম।